ময়মনসিংহ সিটিতে ভোটগ্রহণ শেষ, ফলাফলের অপেক্ষায় প্রার্থীরা

রাজনীতি

আব্দুল মান্নান পল্টন, ময়মনসিংহ ব্যুরো- ময়মনসিংহ সিটিকর্পোরেশন প্রথম নির্বাচনে প্রথমবারের মতো ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) পদ্ধতিতে ভোট প্রদান করেছে উচ্ছাসিত ভোটাররা।

এখন নগরীর ৩৩টি ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৪২ জন ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৭০জন প্রার্থী কাঙ্খিত ফলাফলের অপেক্ষায় রয়েছেন।

রোববার (০৫ মে) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত একযোগে ১২৭টি কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ চলে।

ভোটাররা জানায়, ভোট দিতে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে থাকার অসহনীয় যন্ত্রনা থেকে রেহাই মিলেছে। ইভিএম পদ্ধতিতে যাকে খুশি তাকে ভোট প্রদান করতে পেরে উল্লাসিত নগরবাসী ভবিষ্যতেও ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণের পক্ষে অকুন্ঠ সমর্থন জানিয়েছেন।

সুষ্ঠ ও পরিচ্ছন্ন পদ্ধতিতে ভোট প্রদান করতে পেরে ভোটপ্রদানে অনিচ্ছুক ভোটারদেরকেও ডিজিটাল পদ্ধতিতে ভোটদানে উৎসাহ দিয়ে ভোটকেন্দ্রে পাঠিয়েছেন ভোটাররা। সুষ্ঠ পরিবেশে নজিরবিহীন নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে ভোট সম্পন্ন করার রেকর্ড সৃষ্টি করেছে ইভিএম।

মসিক নির্বাচনে মোট ভোটার ২ লাখ ৯৬ হাজার ৯৩৪ জন। ১২৭ টি কেন্দ্রের ৮৩০ টি ভোটকক্ষে ইভিএমে ভোটগ্রহণ হয়। এ নির্বাচনে মেয়র পদে ভোটের আগেই আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ঈর্ষণীয় জনপ্রিয় নেতা ইকরামুল হক টিটু বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। ফলে নির্বাচনে ৩৩টি ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৪২জন ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৭০জন প্রার্থীকে ভোট দিয়েছেন ভোটাররা।

এ নির্বাচনে সাধারণ ভোটকেন্দ্রে ১২ জন এবং গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রে ১৫ জন করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন রয়েছে। প্র্রতি কেন্দ্রে ৩ জন করে মোট ৩৮১ জন ও মোবাইল টিমে ২৩১ এবং স্ট্রাইকিং ফোর্সে ১৩২ জন পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। প্রতি সাধারণ কেন্দ্রে ১০ জন করে ৩২ কেন্দ্রে ৩২০ জন আনসার সদস্য, স্ট্রাইকিং ফোর্স/মোবাইল টিমে ৩৩ জন ব্যাটালিয়ন আনসার, স্ট্রাইকিং ফোর্স/মোবাইল টিমে ১৮০ জন আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) এবং ৪২০ জন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় দায়িত্ব পালন করছেন। শতভাগ সুষ্ঠ নির্বাচন সম্পন্ন করার নতুন ইতিহাস রচনা করেছেন মেয়র টিটুসহ আইনশৃঙ্খলাবাহিনী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *